আসমানে ট্যাক্সি মাটিতে স্ট্যান্ড!

ঘর থেকে বের হয়ে যেমন ‘এই রিকশা’ বলে ডাক দেওয়া যায়, আকাশের দিকে তাকিয়ে তো আর ‘ভাই, যাবেন নাকি’ বলে হাঁক দেওয়া যায় না। আকাশচারী যানের ওঠানামার জন্য দরকার বিশেষায়িত বন্দর। আর উবার তা ভালো করেই জানে। তাদের ভবিষ্যতের উড়ুক্কু ট্যাক্সির জন্য তেমন বন্দর তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে এখন থেকেই। নাম দিয়েছে ‘স্কাইপোর্ট’। এখন যেমন উবারের অ্যাপে ট্যাক্সি ডাকা যায়, বছর কয়েক পরেই স্কাইপোর্টে গিয়ে ডাকা যাবে উড়ুক্কু ট্যাক্সি।

বিশ্বসেরা স্থপতিদের কাছে স্কাইপোর্টের নকশা আহ্বান করেছিল উবার। গত মাসে যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে অনুষ্ঠিত উবারের বার্ষিক সম্মেলনে সেরা নকশাগুলো দেখিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। তাতে ভবিষ্যতের প্রযুক্তির একটা ধারণা পাওয়া যায়।

উবার স্থপতিদের জানিয়েছিল, নকশা এমন হতে হবে যেন সে বন্দরে ঘণ্টায় ৪ হাজার যাত্রী ওঠানামা করতে পারে, পরিবেশ ও শব্দদূষণ করা চলবে না, আর থাকতে হবে বৈদ্যুতিক উড়ুক্কু ট্যাক্সিগুলোতে চার্জ দেওয়ার ব্যবস্থা। পারিপার্শ্বিক পরিবেশে কোনো সমস্যাও করা চলবে না। স্থপতিরাও তাঁদের কল্পনাশক্তির পুরোটা জুড়ে দিয়েছেন তাঁদের নকশায়। তাঁদের মধ্যে পিকার্ড চিল্টন ও অরূপের তৈরি ‘স্কাই টাওয়ার’, হমফ্রেইস ও পার্টনারের ‘উবার হোভার’, বোকা পাওয়েলের ‘স্কাইপোর্ট প্রোটোটাইপ’ নকশাগুলো বেশ সমাদৃত হয়েছে।

তথ্যসূত্র: দ্য ভার্জ, ছবি: উবার

Check for details
SHARE