সালাম স্টিল কনকস্ট রি-রোলিং মিলস!

বাংলাদেশের ক্রমবর্ধমান শিল্প ইস্পাত খাত। প্রতিষ্ঠিতও বটে। আজকের এই অবস্থানে আসার পেছনে খাতসংশ্লিষ্ট মানুষ ও প্রতিষ্ঠানের বেশ ভূমিকা রয়েছে। দেশের ইস্পাত শিল্পের উন্নয়নে যে কয়েকটি প্রতিষ্ঠান বিশেষ ভূমিকা রাখছে তার মধ্যে অন্যতম সালাম স্টিল কনকস্ট রি-রোলিং মিলস। দেশে এ শিল্পের অগ্রগতিতে প্রতিষ্ঠানটির অবদান ব্যাপক।

এসসিআরএম নামে পরিচিত সালাম স্টিল কনকস্ট রি-রোলিং মিলস। দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে এসএম (মাইল্ড স্টিল) পণ্য উৎপাদন ও বাজারজাত করে আসছে এসসিআরএম। ব্যবসায়িকভাবে সফল প্রতিষ্ঠানটি বিক্রমপুর স্টিল মিলস নির্মাণ করে। বিক্রমপুর স্টিল মিলসই তাদের প্রথম কারখানা।

এর ধারাবাহিকতায় ১৯৯৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় সেমি অটো রি-রোলিং মিলস। এর নাম রাখা হয় সালাম স্টিল কনকস্ট রি-রোলিং মিলস। এরপর হাজী তাহের আলী স্টিল ইন্ডাস্ট্রিজ প্রাইভেট লিমিটেড নামে আরও একটি কারখানা নির্মাণ করে প্রতিষ্ঠানটি। এখানে পাঁচ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম একটি পাওয়ার প্লান্ট নির্মাণ করা হয়।

বর্তমানে এমএস ৪০জি, ৬০জি ও টিএমটি ৫০০ ডব্লিউ বিপণন করে আসছে এসসিআরএম। প্রতিষ্ঠানটির অন্য পণ্যের মধ্যে রয়েছে এমএস বিলেট (রড প্রস্তুতের কাঁচামাল), গ্রেড ৪০০ প্রভৃতি। মোল্ডিং স্ক্রাপকে পরিশোধন ও অন্য রাসায়নিক যোগ করে বিলেট তৈরি করা হয়। গ্রাহককে বিশ্বমানের পণ্য সরবরাহ করে থাকে ওই প্রতিষ্ঠান। উৎপাদন হতে শুরু করে বিপণন পর্যন্ত সব ক্ষেত্রে সততা, আন্তরিকতা ও দক্ষতার সমন্বয় ঘটানো হয় এখানে।

গ্রাহক, শেয়ারহোল্ডার, কর্মী ও সমাজের বৃহৎ স্বার্থ চিন্তা করে তারা সেবা দিয়ে আসছে। সঙ্গত কারণে গ্রাহকরা তাদের সেবায় সন্তুষ্ট। এসসিআরএম টিএমটি ৫০০ ডব্লিউ রডের অন্যতম বৈশিষ্ট্য হচ্ছে ইল্ড স্ট্রেংথ। এর মাধ্যমে রডের চাপ সহ্য করার ক্ষমতা বোঝা যায়।বিশেষজ্ঞদের মতে, যে রডে ইল্ড স্ট্রেংথ যত বেশি, সেই রড তত ভালো। একটি ভালো রডে ৫০০ এমপিএ (৭২৫০০ পিএসআই) ইল্ড স্ট্রেংথ থাকে। প্রতিষ্ঠানটির উৎপাদিত রড এ মানদণ্ডে উতরে গেছে শতভাগ।

প্রতিষ্ঠানটির সূত্রে জানা যায়, এসসিআরএম টিএমটি ৫০০ ডব্লিউ রডে ৫২০ এমপিএ (৭৫০০০ পিএসআই) ইল্ড স্ট্রেংথ রয়েছে। বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) পরীক্ষায় চাপ সহ্যের স্বীকৃতি পেয়েছে এই রড। এসসিআরএম ভোক্তাদের আস্থা অর্জনে সক্ষম হয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন বুয়েটের সাবেক অধ্যাপক এএস ডব্লিউ কার্নি। এ বছরের শুরুর দিকে এক অনুষ্ঠানে এমনই বলেছিলেন তিনি। একই সঙ্গে এই রড যথেষ্ট সোজা। এ ধরনের রড মজবুত রাখে কংক্রিট।

এছাড়া এতে কার্বন কনটেন্ট কম। ফলে ঝালাইয়ে একেবারেই সমস্যা তৈরি করে না এ রড। সব মিলিয়ে নির্মাণকাজের জন্য ভীষণ উপকারী এসসিআরএম টিএমটি ৫০০ ডব্লিউ রড, তাই অল্প সময়ের মধ্যে বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় সেরা রডের তকমা পেয়েছে। এসসিআরএমের উৎপাদিত রডের বৈশিষ্ট্য: ভূমিকম্প সহনীয়। ৩০ শতাংশ সাশ্রয়ী। জং/মরিচা ধরে না। শতভাগ পরিশোধিত।

বিশ্বমানের বিলেট উৎপাদন করে এসসিআরএম। নিজস্ব কন্টিনিউয়াস কাস্টিং মেশিনের (সিসিএম) মাধ্যমে তারা বিলেট প্রস্তুত করে থাকে। ফলে গুণগত মান ও সেরা মানের রড গ্রাহকের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়। শিগগিরই অ্যাঙ্গেল উৎপাদনে আসার পরিকল্পনা রয়েছে সালাম স্টিল কনকস্ট রি-রোলিং মিলসের।

পণ্যের মানের বেলায় কোনো আপস করে না প্রতিষ্ঠানটি। সততা তাদের মূল পুঁজি। উৎপাদনের সব পর্যায়ে সততার পরিচয় দিয়ে আসছে। গ্রাহকের চাহিদা অনুযায়ী যথাসময়ে পণ্য সরবরাহের চেষ্টা করে থাকে। ডেডলাইনের আগে নির্ধারিত কাজ সম্পন্নের চেষ্টা করা হয় এখানে।

সালাম স্টিল কনকস্ট রি-রোলিং মিলসে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন মো. আবদুস সালাম। বাংলাদেশের ইস্পাত শিল্পে অসাধারণ ভূমিকা রাখার জন্য পুরস্কৃত হয়েছেন তিনি। তার সাহসী উদ্যোগের কারণে এই অবস্থানে আসতে পেরেছে প্রতিষ্ঠানটি। ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে রয়েছেন মো. রেজাউল করিম রাজু। পরিচালনা পর্ষদে আরও আছেন মো. নুরুল ইসলাম।

পণ্যের মান উন্নয়নে ব্যবস্থাপনা পর্ষদ ও কর্মীরা ভীষণ সচেতন। এজন্য এখানে রয়েছে ইউনিভার্সাল টেস্টিং মেশিন ও মেটালারজিক্যাল মাইক্রোস্কোপ। একদল দক্ষ প্রকৌশলী সার্বক্ষণিক তত্তাবধান ও পর্যবেক্ষণ করে থাকেন। প্রযুক্তিতে দক্ষ প্রায় সব কর্মী। উপযুক্ত লে-আউট, স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা ও দক্ষ অপারেটর রয়েছে এখানে। সবার পেশাদারিত্ব চোখে পড়ার মতো।

নির্মাণশিল্পে পরিবেশবান্ধব সামগ্রী গুরুত্বপূর্ণ। এই মান বজায় রাখছে এসসিআরএম। গ্রাহকের বাড়ি দৃঢ় ও নিরাপদ রাখাতে অঙ্গীকারবদ্ধ প্রতিষ্ঠানসংশ্লিষ্টরা। কার্বন নিঃসরণ কমিয়ে পরিবেশ রক্ষায়ও ভুমিকা রাখছে ওই প্রতিষ্ঠান। বুয়েটের পাশাপাশি বিএসটিআই, আইএসও, যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের স্ট্যান্ডার্ডও বজায় রেখেছে এসসিআরএমের পণ্য। তথ্যসূত্র: শেয়ারবিজ।

Check for details
SHARE