সফলতার জন্য সব সময় পজেটিভ হোন…

আমাদের যে কোন কিছুতে নেতিবাচক মন্তব্য করা কিংবা নেতিবাচক হিসেবে দেখার প্রবণতা অনেক বেশী। কেউ কোন কিছু করতে চাইছে সেই বিষয়টা নিয়ে যখন আমাদের কাছে শেয়ার করে কিংবা বুদ্ধি পরামর্শ নিতে আসে ঠিক তখনই আমরা সেই বিষয়টির সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা না করে সমস্যা গুলো একের পর এক তুলে ধরে তার উদ্যোগকে কবরে পাঠিয়ে দেই। যত ভাল কিছুর সম্ভাবনাই তার মধ্যে লুকায়িত থাকুন না কেন আমরা নেতিবাচক পরামর্শ দিয়ে তার উদ্যোগের বারটা বাজিয়ে ছাড়ি।

তোমার দ্বারা একাজ সম্ভব নয় বলেই খালাশ। আপনার দ্বারা যে কাজটি সম্ভব নয় সে কাজটি হয়ত তার দ্বারা সম্ভব ছিল এটা আমরা ভাবি না। আমি যে কাজটি করতে পারি নাই কিংবা করতে গিয়ে বিফল হয়েছি সেই কাজটি যে অন্য কেউ করতে পারবে না তা কিন্তু নয়। সুতরাং আপনি তার উদ্যোগকে কখনই ছোট করে দেখতে পারেন না। তাকে হেল্প করতে না পারেন অন্তত সাহস দিন। ভাল কথা বলুন, ভাল পরামর্শ দিন। যখন সেই কাজটিতে সে সফল হয়ে ফিরবে সে আপনার গুনকীর্তন করবে। আপনাকেই ক্রেডিট দিবে তার সফলতার জন্য।

যে কোন কাজে সফল হওয়ার জন্য নিজের আত্মবিশ্বাস বাড়ান। কেউ পারেনি বলে যে আপনি পারবেন না এটা কিন্তু নয়। সব সময় নিজের যে কাজটি করতে ভাল লাগে সেই কাজটি করুন। যে বিষয়টি সম্পর্কে আপনি জানেন তা নিয়ে শুরু করুন। নিজেকে তুলনা করুন সব সময় একটা পজেটিভ মানুষ হিসেবে। আপনি সব খারাপের মধ্যে ভালটা খুঁজুন। অন্ধকার আছে বলেই কিন্তু আমরা আলোর উপস্থিতি অনুভব করতে পারি। অন্ধকারে আলো জ্বেলেই সামনে এগিয়ে যেতে হয়। আলো যতক্ষন পর্যন্ত আপনি নিজের মধ্যে জ্বালাতে না পারবেন না ততক্ষন পর্যন্ত কিন্তু সেই আলোয় অন্যকে আলোকিত করতে পারবেন না।

সফলতা তার কাছেই ধরা দেয় সে সফলতার জন্য লেগে থাকে যোগ্য হয়ে হয়ে ওঠে। যতক্ষণ পর্যন্ত আপনি সফলতা অর্জন করে ধরে রাখার মত ক্ষমতাবান না হবেন ততক্ষণ পর্যন্ত সফলতা আপনার হাতে ধরা দিবে না। ততক্ষণ পর্যন্ত সেই লোক একটা গাড়ি মালিক হয় না যতক্ষন পর্যন্ত কিনা গাড়ির সকল মেইনটানেন্স ক্ষমতাসহ সে গাড়ি কেনার সর্মথ্যবান হয়। আপনাকে স্মরন রাখতে হবে যে কোন কিছু অর্জন করা যতটা কঠিন তার থেকে ধরে রাখা আরও বেশী কঠিন। সুতরাং আপনাকে অর্জনের চেষ্টার সাথে ধরে রাখার ক্ষমতাও বাড়াতে হবে।

ক্রিকেট খেলার মাঠে সব বলই কিন্তু চার ছয় হয় না। ব্যাটসম্যান জানে তাকে মাঠ থেকে বিদায় করার জন্যই বোলার দৌড়ে আসে। সেটি মোকাবেলা করেই তাকে মাঠে টিকে থাকতে হবে। আর বিজয় আনতে গেলে তাকে সর্বোচ্চ টুকুই মাঠে দিতে হবে। আমরা খেলা দেখি আনন্দের জন্য কিন্তু এর মধ্যে যে কতবড় শিক্ষা লুকায়িত আছে তা কখনও ভেবে দেখি না। একজন ফুটবলার যখন মাঠে নামে তখন ৯০ মিনিট নয় ১২০ মিনিট খেলার মত দম নিয়েই সে মাঠে নামে। কারন সে জানে ৯০ মিনিটে খেলা শেষ নাও হতে পারে। সুতরাং আপনাকে সফলতা পেতে হলে সর্বোচ্চ চেষ্টা করতেই হবে। থাকতে হবে পজেটিভ। যে যা বলে বলুক তাতে কি যায় আসে। আপনি সেই কাজটি সফল করে প্রমান করেন যে বলেছিল এটা তোমার দ্বারা সম্ভব নয়। আর এটাই হবে তার জন্য মোক্ষম জবাব।

শুভকামনা সকলের জন্য। পজেটিভ থাকুন ভাল কিছুর সন্ধান করুন। আপনার জন্য সফলতা অনিবার্য। আমাদের আপডেট নিয়মিত পেতে উদ্যোক্তার খোঁজে ডটকমের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে রাখুন। লিখাটি আপনার বন্ধুর জন্য শেয়ার করুন।

লেখক: মাকসুদা আক্তার তিন্নি/ উদ্যোক্তার খোঁজে ডটকম।

Check for details
SHARE