সফলতার জন্য রাগ দামী আর হাসি সস্তা করুন

রাগ ও হাসি আমাদের স্বভাব সুলভ একটি অনুভুতি। কিন্তু এই দুটো অনুভুতি প্রকাশের সঙ্গে আচরণের ভিন্নতা প্রকাশ পায়। উত্তেজনা প্রকাশের বিকৃত এক ভঙ্গি রাগ। যা আপনার অজান্তে আপনার কত বড় ক্ষতি ডেকে আনছে তা আপনি চিন্তাও করতে পারছেন না। রেগে গেলে আমরা কোথায় কি বলতে হবে, যার উপর রাগন্বিত তার সাথে কিভাবে আচরন করতে হবে সে ব্যাপারে প্রায়শই ভুল করে ফেলি। এমনকি রাগের বহিঃপ্রকাশ করতে গিয়ে আঘাত করতেও দ্বিধাবোধ করি না।

কিন্তু রাগকে যদি হাসিতে রুপান্তর করতে পারেন তা আপনার জন্য কতটা মঙ্গল বয়ে আনতে পারে তা কল্পনাও করতে পারবেন না। আমরা খুব ছোট ছোট বিষয় নিয়ে একে অন্যের সাথে তর্কে জড়িয়ে পড়ি। যে বিষয় গুলো অনেক তুচ্ছ সেটিও টেনে হিঁছড়ে মুহুর্তেই বড় করে ফেলি। সহ্য ক্ষমতার বাইরে গিয়ে আক্রমনাত্বক হয়ে উঠি। সবার সাথে সব বিষয়ে মতের মিল হবে এমনটা ভাবা ভুল। কিন্তু মতের মিল না হলে কিংবা ক্ষুদ্র কোন স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে এতটাই উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ি যে তার সাথে মুহুর্তেই রেগে যাই। এমনকি বহুদিনের পুরাতন সম্পর্কও বিচ্ছেদ করতে একটুও ভাবি না।

প্রতিটা মানুষের মধ্যে রাগ আছে। কিন্তু তার বহিঃপ্রকাশ যে বিকৃত ভাবেই করতে হবে এমন টা কেন চিন্তা করেন। একবার ভিন্নভাবে চিন্তা করেন। আপনি রাগকে জয় করবেন হাসি দিয়ে। কথায় আছে রেগে গেলেন তো হেরে গেলেন। কথাটির সাথে জয় পরাজয় জড়িত। আপনি যার ওপর রাগ করছেন তাকে জয় করার দরকার নাই। পরিস্থিতি যাই হোক আপনি রাগন্বিত হবেন না। আর এই জয়ই শ্রেষ্ঠ জয়। কেউ আপনার ওপর অকারনে কিংবা আপনাকে না বুঝে অন্যায় ভাবেই আপনার উপর রাগ করেছে। আপনি কি করবেন?

একটি কথা জেনে রাখুন শিক্ষিত-অশিক্ষিত প্রতিটা মানুষই ন্যায়-অন্যায় বুঝে। বিবেক প্রতিটা মানুষের আছে। আপনি তার কাছে নিজে থেকেই একটু ছোট হয়ে আপনার অন্যায় না হয়ে থাকলেও তার কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করুন। ভুল আপনার না হলেও নিজ থেকে ভুল স্বীকার করুন। পরিস্থিতি অনুযায়ী প্রয়োজনে তর্কে না জড়িয়ে চুপ থাকুন। ঠোটের কোনে এক টুকরো হাসি রেখে তার সাথে কথা বলুন। ধৈর্যধারন করুন হিংসাত্বক অবস্থান না নিয়ে। স্বার্থ জড়িত কোন বিষয় ছাড়া দ্বিপাক্ষিক চুক্তি হয় না। পৃথিবীর প্রতিটা মানুষ স্বার্থ নিয়ে চলে এটা বুঝুন। কারও কম কারও বা একটু বেশী।

স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে রাগের উদ্ভব হলে সংযত হোন আক্রমনাত্বক না হয়ে। পৃথিবীটা সুন্দর কিন্তু আপনি আমি ক্ষণস্থায়ী। কাফনের কাপড়ে পকেট নেই। পৃথিবী থেকে আপনি কিছুই নিয়ে যেতে পারবেন না। সুতরাং ছাড় দেওয়ার মানুষিকতা তৈরী করুন। আপনি আমি যার পেছনে ছুটছি সবই মায়া। ক্ষমতা, টাকা, নারী যার উপর লোভ মানুষের চিরন্তন। কিন্তু তা নিয়ে সংঘাতে জড়িয়ে জীবনটাকে বিষিয়ে তোলার কি দরকার? আপনি আপনার আচরন এমন ভাবে প্রকাশ করুন যা থেকে অন্যরা আপনার প্রশংসা করতে বাধ্য হয়।

হাসি দ্বারা পৃথিবী জয় করতে পারবেন। হাসি এমন এক অস্ত্র যা আপনার সফলতার যাত্রাপথ সহজ করে দিতে পারে। হাসিমুখে কথা বলুন সবসময়। একটা হাসি একটা জীবন ফিরিয়ে দিতে প্রস্তুত। সবাই হাসতে পারে না। শত দুঃখের মাঝেও কিছু মানুষ আছে যারা হাসতে পারে। হাসি মুখে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করুন। সুখ পাবেন। জীবনে অঢেল টাকা পয়সার মালিক হওয়া, বিশাল ক্ষমতার অধিকারী হওয়া সব কিছু নয়। জীবনে সুখী হওয়া খুব দরকার। জীবনে সুখী হওয়ার জন্য যতটুকু টাকা পয়সা, যতটুকু ক্ষমতার দরকার ততটুকুর সন্ধান করুন। কিন্তু ক্ষমতার জন্য, টাকার জন্য জীবনের সুখ বিসর্জন দেওয়া বোকামী ছাড়া আর কিছুই না।

সবশেষ একটা কথাই বলতে চাই আপনার রাগকে অনেক বেশী মূল্যবান করুন। যা লক্ষকোটি টাকার বিনিময়েও কেউ কিনতে না পারে। চাইলেও আপনাকে কেউ রাগাতে পারবে না এটা হোক আপনার প্রতিজ্ঞা। আর আপনার মুখের হাসিটা এতটা সস্তা করুন যাতে যে কেউ না চাইলেই তা বিনামূল্যে আপনার কাছ থেকে পেয়ে যেতে পারে। একটা হাসিই তো ভাই ঠোটের কোনে ধরে রাখুন। পুরো বিশ্বজয়ী সুখী মানুষের অনুভুতি আপনার কাছে সঞ্চিত থাকবে।

মোঃ মাসুদুর রহমান (মাসুদ)
মোটিভেশনাল লেখক/উদ্যোক্তার খোঁজে ডটকম।

Check for details
SHARE