রূপচর্চার সাথে চাই মনচর্চা!

মনচর্চা! কথাটি শুনতে অবাক লাগছে তাই না পাঠক? হ্যা, রূপচর্চার পাশাপাশি চাই মনেরও চর্চা। মনচর্চার কথা বলতেই, মনে পড়ে গেল রবি ঠাকুরের বিখ্যাত দুটি লাইন, রুপে চক্ষু জুড়ায়, গুন অন্তর জুড়ায়। ঘষামাজা করে রূপচর্চা করে হয়তো চোখ জুড়ানো যায় সহজেই কিন্তু সেটি ক্ষনস্থায়ী। তাই বলে কি রূপচর্চা করব না? করবো তবে সবার আগে চাই মনচর্চা মানে একটি সুন্দর মন তৈরী করার জন্য যত্নবান হওয়া। মন অন্তর জুড়ায় যেটি চিরস্থায়ী। তাই গুনকে সমৃদ্ধ করতে চাই মানসিক প্রশান্তির জন্য ভাল কাজগুলোর চর্চা।

একজন ভালো মনের মানুষের গ্রহনযোগ্যতা একটু বেশিই, সবাই তাদের কথা মনে রাখে এবং সবার নিকট তারা ভালোবাসার পাত্র হয়ে থাকে।
যদি একটু মনচর্চা করে সবার কাছে ভালবাসার পাত্র হয়ে থাকা যায়,তবে এ সুযোগ কেন হাতছাড়া করবেন? মনের চর্চা বা আত্মশুদ্ধির জন্য আপনাকে খুব বেশি কিছু করতে হবে না। সুন্দর মনের মানুষ হওয়ার পথ রয়েছে অসংখ্য,

দুর্বলের উপকার করুন, এতে মন প্রশান্ত থাকে এবং অপরের ও উপকার হয়। আমাদের সবার ই জানা আছে, ‘অপরের উপকার করে যেইজন, সেইজন সবিছে ঈশ্বর।’

অল্পতেই খুশি সবাই হতে পারে না,যারা পারে তারাই তো সুন্দর মনের মানুষ। আর সুন্দর মনের কথা বললে সাদা মনের মানুষদের কথা মনে পড়ে,মনে পড়ে যায় বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গের কথা। এদের মধ্যে শেখ সাদি,ন্যালসন ম্যান্ডেলা ইত্যাদি কথা না বললেই নয়। ইতিহাস পর্যালোচনা করলে দেখা যায়, আমাদের মহানবী (সাঃ) এবং অন্যান্যও নবী ও সাহাবীগন ও কিন্ত অল্পতেই খুশি থাকতেন।

অন্যের সমালোচনা না করে,বরং নিজের আত্নলোচনা করুন।নিজের আত্নলোচনা করাই সুন্দর মন এবং বুদ্ধিমনের কাজ।

মন থেকে খুশি থাকুন।রাশিয়ার একদল সাইকোলজিস্ট দের মতে,যে মন থেকে খুশি না,তাকে কারো সাধ্য নেই খুশি করার।তাই মন থেকেই সুখি থাকুন,দেখবেন সুখ আপনার দরজায় কড়া নাড়ছে।

বেশি বেশি বই পড়ুন অথবা ভ্রমন করুন, এতে মন খানিকটা না অনেকটাই প্রফুল্ল থাকে।

মনের মধ্যে ত্যাগ তিতিক্ষা গড়ে তুলুন।কথায় আছে,’ভোগে সুখ নেই,ত্যাগেই প্রকৃত সুখ’।

নিজেকে বুঝুন এবং নিজেকে প্রদান্য দিন।সন্তুষ্ট থাকুন মন থেকে।মন সুন্দর তো সব সুন্দর।

মনকে একটু খানি সুন্দর করতে আপনাকে আহামরি অনেক কিছু করতে হবে না। শুধু দরকার পজেটিভ এবং সাবলিল চিন্তা ভাবনা। তবে,আজ থেকেই শুরু করুন মনচর্চা।

আনিকা আফরিন
উদ্যোক্তার খোঁজে ডটকম।

Check for details
SHARE