ভারত থেকে গরু না আসায় তৈরী হয়েছে নতুন সম্ভাবনা

10411117_614089325361526_1742977479031617595_nবাংলাদেশ অপার সম্ভাবনার দেশ। আর এ সম্ভাবনাকে সঠিক ভাবে কাজে লাগানোর মত আরও একটি অপূর্ব সুযোগ তৈরী হয়েছে ভারত থেকে বাংলাদেশে গরু আমদানি বন্ধ হওয়ায়। যদিও আমরা এ সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে পারিনি এখনও।

বাংলাদেশ মুসলিম প্রধান দেশ। আর হালাল খাদ্য হিসেবে মুসলমানদের খাদ্য তালিকায় গরুর মাংশ অন্যতম। তাছাড়া আমাদের পর্যাপ্ত আমিষের যোগান তো দিয়েই চলেছে। মাছে ভাতে বাঙালীর গরুর মাংশ কতটা প্রিয় খাবার তা একটু হিসেব করলেই পাওয়া যাবে। ২৫০ টাকার গরুর মাংশ ৩৮০ থেকে ৪০০ টাকায় কিনে খেতে একটুও দ্বিধা বোধ করছি না আমরা। কিংবা একটা দিনের জন্য গরুর মাংশ খাওয়াও বন্ধ করিনি আমরা।সিমান্ত দিয়ে গরু মহিষ পাচার রোধে কিছুদিন আগে নয়াদিল্লী কড়াকড়ি আরোপ করে। আর সেই সাথে অঘোষিত ভাবে এক প্রকার বন্ধই হয়ে যায় গরু আমদানি। দেশের অভ্যন্তরে যে পরিমান মাংশের চাহিদা আছে তা পুরন করতে না পেরে গরুর মাংশের বাজার লাগামহীন গতিতে বেড়ে যায়।

আর বাংলাদেশের জন্য তৈরী হয় নতুন সম্ভাবনা। বানিজ্যিক ভাবে গরু পালনের মাধ্যমে সফল হওয়ার সুযোগও তৈরী হয়। কিছুদিন আগে যে গরু বিশ থেকে পঁচিশ হাজার টাকায় বিক্রি হত এখন সেই গরুর পঁয়ত্রিশ থেকে চল্লিশ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। গো খাদ্যের দাম কিন্তু সেই আগের জায়গাতেই আছে। যারা গরু পালন করছে তারা এখন দেখছে অধিক পরিমান লাভের মুখ।

চামড়া শিল্পের জন্য কাঁচা চামড়ারও একটা অভ্যন্তরীন সংকট চলছে। ফলে কাঁচা চামড়ার দামও বেড়েছে। ভারত থেকে আমদানি করা গরুর চামড়ার থেকে আমাদের দেশীয় গরুর চামড়ার মানও কোন অংশে কম নয়। বরং বেশী।

বাংলাদেশে এই মূহুর্তে গ্রামীন পর্যায়ে ও বানিজ্যিক ভিত্তিতে গরুর খামার গড়ে তুলতে পারলে পরমুখাপেক্ষীতা ঘুচিয়ে মাংশ উৎপাদনে সাবলম্বী হতে পারে। বেকার জনগোষ্ঠীর জন্য ব্যাপক কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে চামড়া শিলেপর কাাঁচা চামড়ার সংকটও মোকাবেলা করা সম্ভব হবে। উন্নত মানের চামড়া এ শিল্পকে করবে অধিক সমৃদ্ধ।

বনিজ্যিক ভিত্তিতে মাংশ উৎপাদনের লক্ষে গরু পালনের জন্য প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ পাবেন যুব উন্নয়ন অধিদ্পতরের মাধ্যমে। খামার করার জন্য প্রয়োজনীয় ঋনের ব্যবস্থাও করে থাকে এ প্রতিষঠানটি। তাছাড়া ব্যাংকও এ খাতে ঋণ দিতে বেশ আগ্রহী। এছাড়াও প্রানী স্মপদ অধিদপ্তরে যোগাযোগ করতে পারেন প্রয়োজনীয় তথ্যের জন্য।

ভারত গরু রপ্তানী বন্ধের এ পদক্ষেপ নিয়ে বাংলাদেশের বাজারের দাম বৃদ্ধি করে যে সুবিধাটা নিতে চাইছে তা রুখে দেওয়ার মাধ্যমে নিজেদের এ খাতকে সমৃদ্ধ করার এখনই সময়। এগিয়ে আসুন এ খাতে। নিজেকে সাবলম্বী করে সফলতা যদি পেতে চান। এখনই উপযুক্ত সময় এ খাতে বিনিয়োগের মাধ্যমে সমৃদ্ধ করার।

শুভকামনা সকলের জন্য।
লাইক দিয়ে পেইজের সাথে থাকুন ও আপনার বন্ধুদের ইনভাইট করুন পেইজে। এবং এ বিষয় সম্পর্কে অন্যদের জানাতে পোষ্টটি শেয়ার করতে পারেন……

 

Check for details
SHARE