ব্যর্থতা থেকেই জীবনে সফল হওয়া সম্ভব

1455114714_634egieকলা গাছ লাগিয়ে তা থেকে আপনি নিশ্চয় আম পাওয়ার স্বপ্ন দেখার মত বোকা নন। আর যদি তাই হয় তাহলে আপনি ব্যর্থতাকে বাদ দিয়ে সফলতার চিন্তা কি করে করেন? ব্যর্থতা তো আপনার জানার সল্পতার কারনে আসে। আপনি ব্যবসা সম্পর্কে ঠিকমত না জেনে না বুঝে শুরু করলে সৃষ্ট ক্ষতির ফল তো আপনাকেই বহন করতে হবে।

ব্যর্থতা থেকে সফলতার দিকে অগ্রসর হওয়ার পথে মাসুদুর রহমান আমন্ত্রন জানাচ্ছি আপনাদের সকলকে।
আশা করছি সাথে থাকবেন কিছুটা সময়।

ধরুন আপনার গার্মেন্টস ব্যবসার প্রতি আগ্রহ বা বিনিয়োগ করার মত সামর্থ্য সবই আছে। আপনি জানেন এ ব্যবসায় প্রচুর লাভ। ইতিমধ্যে যারা করছে তাদের অনেকে আপনার সামনে সফলতাও পেয়েছে। গাড়ি বাড়ি সবকিছূই করেছে। আর তাদের ব্যাংক ব্যালেন্স এখন টাকায় নয় ডলারে হিসাব করতে হয়। আপনি তাকিয়ে তাকিয়ে দেখেছেন তাদের বড় হওয়া। আর ভেবেছেন আল্লাহ যারে দেয় তারে থাব্বা মাইরা এই ভাবেই দেয়। কিন্তু কখনও জানার চেষ্টা করেননি তার সফলতার পেছনের সোনারকাঠি কোথায়।

এবার আপনি এই একই ব্যবসা শুরু করার জন্য আর একদিনও দেরী করতে রাজি নন। আপনার ব্যাংকে জমানো অর্থ কিংবা পৈতৃক সুত্রে পাওয়া জমি জমা আর বউয়ের গহনা বিক্রি করে ভাড়া নিয়ে নিলেন গার্মেন্টস ব্যবসার জন্য স্থান। না বুঝেই বেশী দামে কিনে ফেললেন নিন্মমানের মেশিনপত্র। সংস্থাপনও করলেন ইচ্ছেমত জায়গায়। কর্মীও নিয়োগ দিয়ে দিলেন তাদের মান যাচাই না করেই। বায়িং হাউজ এর সঙ্গে যোগাযোগও করলেন।

কপালের ঘাম পায়ে ঝড়িয়ে ছোটখাট  অর্ডারও পেয়ে গেলেন। এবার অর্ডারপাওয়া মাল প্রস্তুতের জন্য আপনিও প্রস্তুত। কিনে আনলেন সবই। কিন্তু সঠিক দামে সঠিক কাপড়, সুতা, বোতাম কিনতে পারলেন না। আপনার শ্রমিকেরা দক্ষ না হওয়ার কারনে তারাও কাটিং থেকে শুরু করে ফিনিশিং পর্যন্ত বায়ার এর চাহিদা মোতাবেক নির্দিষ্ট মানের পণ্যটি তৈরী করতে পারল না। চুরান্ত পর্যায়ে এসে বায়ারের মাল ডেলিভারীর সময় বায়ার আপনার পণ্যের মানে সন্তুষ্ট না হতে পেরে আপনাকে দেওয়া অর্ডারটি বাতিল ঘোষনা করল।

আপনি কিছুটা বিচলিত হয়ে পরে লোকসান ঠেকাতে উৎপাদন খরচের চেয়েও কমদামে দেশীয় বাজারে বিক্রি করলেন। আর এভাবে দু-চার বার চেষ্টা করতে না করতেই আপনার কাধে ঋণের বোঝা ওঠার মত অবস্থা। সুতরাং বাধ্য হয়েই আপনাকে ব্যবসা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে। আর ব্যর্থতা আপনার কাধে চাপছে সফলতার স্বপ্ন ভঙ্গ করে।

এমন হাজারটা ব্যবসা নিয়ে ব্যর্থতার গল্প হয়ত সাজানো সম্ভব। শুধুমাত্র না জানার কারন কিংবা সংশ্লিষ্ট ব্যবসা সম্পর্কে সল্প জ্ঞানের কারনে ব্যর্থতাকে বরন করে নিয়ে সম্ভাবনাকে গলাটিপে হত্যা করে সর্বশান্ত হচ্ছি আমরা। তারপর আর কোন সাহসী উদ্যোগ নেয়া তো দুরের কথা ব্যবসার কথা শুনলেই আতকে উঠেন আপনি। কিন্তু কবে সেই হাটতে গিয়ে আছাড় পড়েছেন বলে আপনি তো হাটা বাদ দেন নাই। তাহলে বার বার উঠে দাড়ানোর চেষ্টা করতে আপনার বাধা কোথায়?

যেকোন ব্যবসা করার জন্য সংশ্লিষ্ট ব্যবসা সম্পর্কে আপনার পূর্ণ জ্ঞান থাকা খুব জরুরী তাতে যদি আপনি ফুটপাতে বসে কাপড় বিক্রিও করেন। আপনাকে জানতে হবে কোথা থেকে কমদামে ভালমানের পন্যটি সংগ্রহ করে সঠিক ভাবে আপনার ক্রেতার নিকট উপস্থাপন করে বিক্রয় করা এবং সেই সাথে কাংখিত লাভের ফসল ঘরে তোলার প্রক্রিয়াটি। না হলে সেখানেও যে লোকসানের ঝুকি মুক্ত তা নয়।

আমাদের অনেকের ধারনা বড় করে শুরু না করলে অধিক পরিমান পুজিঁ বিনিয়োগ না করলে কোন ব্যবসা দাঁড় করানো সম্ভব না। তাদের জন্য বলছি বড় যদি হতে চাও ছোট হও আগে। সেটা ব্যবসায়ের শুরু হোক আর আপনার আচরনের দিক থেকে হোক। আপনি ছোট করে ব্যবসা শুরু করলে আপনার সংশ্লিষ্ট ব্যবসা সম্পর্কে কম জানা থাকলে আপনি ক্ষতির সম্মূখীন হলেও ছোট আকারে হবেন।

আজকের অ্যাপেল কোম্পানীর যাত্রা কোথা থেকে শুরু করেছিল জানা আছে কি আপনার? সামান্য আপেল এর ব্যবসা থেকে। আর নানা সংকট পারি দিয়ে আজ অ্যাপেল কোম্পানী প্রযুক্তি খাতের বড় একটি বাজার লীড করছে। এই অ্যাপেল এর ব্যর্থতার গল্পও কিন্তু সীমিত নয়। তার পরও শীর্ষে চলে এসেছে তাদের উন্নত কর্মপরিকল্পনার কারনে।

আবার অনেকেই ব্যবসা শুরুর আগে আকাশকুসুম ভেবে বসে থাকি। লাভের হিসাব কষতে থাকি ব্যবসা শুরুর আগেই। সঠিক কোন কর্মপরিকল্পনা না করেই শুরু করি। শুরুতেই ব্যয় বাড়িয়ে দিয়ে কাজ করা আরম্ভ করি। পরে একটা সময় দেখা যায় অতিরিক্ত ব্যয়ভার বহন করতে করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। ব্যবসা কি হবে না হবে তার আগে বড় একটা ডেকোরেশন করা অফিস চাই। আয়ের খাত খোলার আগে চুর্তদিকে ব্যয়ের খাত খুলে বসে থাকি। ফলাফল ব্যর্থতার দেখা পওয়া সহজ হয়।

ধৈর্য্য এমন এক ফল যার সারা গয়ে কাটা আর খেতে খুব মিষ্টি। ইসলাম ধর্মের পথ প্রদর্শক মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর মুখের কথা এটি। ধরেই দেখুন না কি চমৎকার ফল পান। অধের্য্য মানুষ ঠিক তখনই হয় যখন সফলতা খুব কাছেই থাকে। আলো আপনার খুব কাছেই যখন রাতের আধার বিদায় নেওয়ার সময় হয়। তাই কোনমতেই ধৈর্য্য হারা হলে চলবে না।

শেষটাতে বলতে চাই পরিকল্পনা সাজিয়ে টার্গেট নির্ধারণ করে জেনে বুঝে শুরু করুন। প্রয়ােজনে জানার জন্য, বোঝার জন্য, শেখার জন্য অন্যের প্রতিষ্ঠানে চাকুরি নেন। সময় নিয়ে কাজে হাত দিন। সেই সাথে কালী প্রসন্ন ঘোষের পরিব না কবিতাটির শেষ লাইন মনে রেখে এগিয়ে যান “একবার না পারিলে দেখ শতবার” মাথায় রেখে এগিয়ে চলুন। সফলতা আসতেই হবে।

আপনাকে থাকতে হবে পজেটিভ। মনে রাখতে হবে আপনি আত্মপ্রত্যয়ী মানুষগুলোর একজন সেই সাথে  পথপ্রদর্শকও। আজ আপনি যে পথে সফলতা ছিনিয়ে আনবেন আপনার সেই পথ ধরেই আগামীতে চলবে অনেকেই। সুতরাং ব্যর্থতা আসুক হাজার কি যায় আসে সফলতা তার পিছু পিছু আসে…।

সকলের জন্য শুভকামনা জানিয়ে বিদায় নিচ্ছি আজকের মত। আমাদের আপডেট নিয়মিত পেতে হলে আমাদের ফেসবুকে লাইক দিয়ে রাখুন। আর লিখা সম্পর্কে আপনার মতামত জানাতে ভুর করবেন না কিন্তু।

Check for details
SHARE