প্রয়োজনে অভদ্র হতে হয়!

অ্যাভেঞ্জার্স: ইনফিনিটি ওয়ার জ্বরে কাঁপছে চলচ্চিত্রের দুনিয়া। বাংলাদেশে তো বটেই, সারা বিশ্বেই হলিউডের চলচ্চিত্রটি নিয়ে তুমুল আলোচনা হচ্ছে। অ্যাভেঞ্জার্সভক্ত যাঁরা, মার্ক রাফেলো নামটি নিশ্চয়ই তাঁদের চেনা। পর্দায় যিনি হাল্ক রূপে সব ভেঙে গুঁড়িয়ে দেন, বাস্তবেও তিনি ভেঙে দিতে চান সব অনিয়ম, অন্যায়। যুক্তরাষ্ট্রের এই অভিনয়শিল্পী একজন পরিবেশবাদী। পরিবেশ রক্ষায় নানা কার্যক্রমের জন্য ২০১৫ সালে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ডিকিনসন কলেজ থেকে সম্মানসূচক পুরস্কার পেয়েছেন। দিয়েছেন সমাবর্তন বক্তৃতা। কলেজ থেকে স্নাতক করার সৌভাগ্য আমার হয়নি। অতএব তোমাদের সামনে দাঁড়িয়ে কথা বলতে একটু ভয় ভয় লাগছে। ধন্যবাদ। এত বড় সম্মানের জন্য আমি সত্যিই কৃতজ্ঞ। ধন্যবাদ স্যাম এবং জুলি। ধন্যবাদ প্রেসিডেন্ট রোজম্যান।

ওয়াটার ডিফেন্সের সব কর্মীর পক্ষ থেকে আমি আজ স্যাম রোজ এবং জুলিয়া ওয়াল্টারস পুরস্কার গ্রহণ করছি। পুরস্কারের পুরো টাকাটা আমাদের অলাভজনক সংস্থা ওয়াটার ডিফেন্সের কোষাগারে যোগ হবে। অতএব ধন্যবাদ আবারও ভেবেছিলাম আজ আমাদের এই সংস্থার কাজ সম্পর্কে তোমাদের জানাব। কিন্তু মনে হলো, আমার বরং তোমাদের নিয়ে কথা বলা উচিত। ওয়াটার ডিফেন্স সম্পর্কে জানতে হলে তোমরা ওয়েবসাইটে চোখ রেখো।

শিক্ষার্থী এবং মা-বাবারা শুনে রাখুন, ‘অ্যাকটিভিস্ট’ (কর্মী) কোনো নোংরা শব্দ নয়। কখনো ভাবিনি আমি একজন অ্যাকটিভিস্ট হব। আমার এই পরিচয়ের পেছনে বড় ভূমিকা রেখেছেন ল্যারি ক্র্যামার। তিনি এইডস নিয়ে কাজ করছেন। তাঁকে দেখেই অনুপ্রেরণা পেয়েছি। তিনি বলেন, যা তুমি ভালোবাসো, তার জন্য তোমাকে অবশ্যই লড়াই করতে হবে।

আমার ধারণা, তোমরা প্রত্যেকেই ভিন্ন ভিন্ন লড়াইয়ের মুখোমুখি হচ্ছ। ভাবতে ভালো লাগে, তোমাদের প্রজন্ম এই লড়াইগুলোর জন্য প্রস্তুত। জলবায়ু পরিবর্তন, বিশাল অথচ অসামঞ্জস্যপূর্ণ করপোরেট জগৎ, পরিবেশ বিপর্যয়, সবার জন্য ন্যায়বিচার…এমন আরও অনেক বিষয় আমাদের সামনে। সব কটিই ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। কোনোটাই এড়িয়ে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। তোমাদের সামনে দাঁড়িয়ে আজ আমি ভীষণ রোমাঞ্চ অনুভব করছি। কারণ আমি জানি, এগুলো সম্পর্কে তোমাদের খুব ভালো ধারণা আছে। আমি জানি, তোমরাই পারবে সারা পৃথিবীর সামনে বিষয়গুলো তুলে ধরতে, আলোড়ন ফেলতে।

অতএব আজ তোমাদের কাছে আবেদন, প্রয়োজনে কখনো কখনো অভদ্র হও। নিয়ম ভেঙে ফেলো। তুমি যা বিশ্বাস করো, সেটির জন্য লড়াই করো। এখনই সময়। এই দায়িত্ব তোমাদেরই নিতে হবে। তোমার স্বপ্নের পৃথিবী তো তুমিই গড়বে। তোমাদের সামনে দাঁড়িয়ে আজ আমি ভীষণ রোমাঞ্চিত। কারণ আমি জানি, বাইরে বেরিয়ে তোমরা অসাধারণ সব কাজ করবে। সেভাবেই নিজেদের তৈরি করেছ। কোনো কিছুকে ভয় পেয়ো না। ধন্যবাদ। এই সম্মান আমার জন্য অনেক বড়।

ইংরেজি থেকে অনুবাদ: মো. সাইফুল্লাহ
সূত্র: টাইম ডট কম। সংগৃহীত: প্রথম আলো ডটকম।

Check for details
SHARE