এসি ছাড়াই ঘর ঠান্ডা রাখুন!

গীষ্মের তাপদাহ উপাত্ত ছড়াচ্ছে। গরম দৈনন্দিন জীবনে অস্বস্তিতে ফেলেছে। ঘর ঠান্ডা রাখতে অনেকেই শীতাতত নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র সংযোজন করেন। কিন্তু সকলের তা কেনার স্বামর্থ্য নেই। আপনি চাইলে গরমে ঘর রাখুন ঠান্ডার জন্য কয়েকটি সহজ পদ্ধতি মেনে চলতে পারেন।

এক ঘর ঠান্ডা রাখার জন্যে প্রথমেই যে কাজটা করতে হবে সেটা হচ্ছে, যতটা সম্ভব দুপুরের সূর্যের প্রখর তাপ ঘরে আসতে না দেওয়া। সে ক্ষেত্রে দক্ষিণ ও পশ্চিম দিকের জানালা, যেগুলো দিয়ে সরাসরি সূর্যের আলো ঢোকে সে সব জানালার পর্দা বা উইন্ডো ব্লাইন্ড টেনে রাখুন এবং জানালাও বন্ধ রাখুন।

আপনার বাড়ির কোন অংশে সবচেয়ে বেশি হাওয়া আসা-যাওয়া করে তা খেয়াল করুন। তাহলে আপনি সেই অংশের জানালা খোলা রাখতে পারেন। এর ফলে সূর্যাস্তের পরেও ঘরে হাওয়া আসা-যাওয়া করবে। পূর্ব ও পশ্চিমের জানালাগুলোয় সানশেড বা ছাউনির ব্যবস্থা করুন। তাপ উৎপন্ন করতে পারে, বিকেলের দিকে এমন কাজ করা বন্ধ করুন। বাড়ি শীতল রাখার জন্য ঘরের চারপাশে গাছপালা লাগান। ছায়া দিতে পারে এমন গাছ পূর্ব-পশ্চিমে লাগালে আপনার বাড়িতে সূর্যের তাপ ঢুকতে বাধা দেবে। ঘরের চারপাশে ঘাস ও ঘাস জাতীয় গাছ থাকলে ঘর ঠান্ডা থাকে।

সাদা বা হালকা রংয়ের সুতির কাপড় বিছানার চাদর ব্যবহার করুন। বিছানার চাদর মোটা ও কারুকাজ থাকলে ঘাম বেশি হয়। সাদা ও হালকা রঙের কাপড় তাপ শোষণ করে না, বরং প্রতিফলিত করে। কাজ না থাকলে কম্পিউটার ও ল্যাপটপ বন্ধ করে রাখুন। কম্পিউটার ও ল্যাপটপ প্রচুর তাপ উৎপন্ন করে, যা ঘরকে গরম করে ফেলে। তাই ঘর ঠান্ডা রাখতে চাইলে অপ্রয়োজনে এসব গ্যাজেট চালিয়ে না রাখাই ভাল।

এক বাটি বরফের টুকরো নিয়ে ফ্যানের নিচে রেখে ফ্যান চালু করুন। কিছুক্ষণ পর বরফগুলো যখন গলতে শুরু করবে, তখন বাতাস ওই ঠান্ডা জল শোষণ করবে এবং ছড়িয়ে দেবে। এর ফলে আপনার ঘর ঠান্ডা হবে। বেশ কিছু ইন্ডোর প্লান্ট রয়েছে, যা বাড়ির মধ্যে রাখলে ঘর ঠান্ডা থাকে। যেমন অ্যালোভেরা, বস্টন ফার্ন, স্নেক প্লান্ট, উইপিং ফিগ, অ্যারিকা পাম ইত্যাদি। ঘরের হাওয়াকেও শুদ্ধ করে এই গাছগুলো।

ঘর যথাসম্ভব পরিষ্কার রাখুন। দুপুরবেলা একবার এবং রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে একবার ঘরটাকে ঠান্ডা জল দিয়ে মুছে নিলে ঘরের তাপমাত্রা অনেকটাই কমে যায়। রাতের বেলা টেবিল বা পোর্টেবল ফ্যান জানালার কাছে নিয়ে চালিয়ে দিন। এটা বাইরের ঠান্ডা হাওয়া ভিতরে নিয়ে আসবে এবং ঘরের গরম দূর হবে।

তথ্যসূত্র: ঢাকা টাইমস ২৪ ডটকম।

Check for details
SHARE