আরব আমিরাতে প্রবাসী ব্যবসায়ীর সফলতার গল্প!

আরব আমিরাতে ব্যবসা সাফল্যে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করে দেশটির শ্রম মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রদত্ত গোল্ডক্লাস মর্যাদা প্রাপ্ত হয়ে বাংলাদেশ ও প্রবাসীদের ব্যাপক সম্মান বয়ে এনেছেন আমিরাতে বাংলাদেশি মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান টোকিও সেট গ্রুপ অফ কোম্পানিঞ্জের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মাহবুব আলম মানিক। বর্তমানে আমিরাতসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে জনপ্রিয়তার শীর্ষে উঠে আসা বাংলাদেশি উল্লেখযোগ্য কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে তার টোকিও সেট গ্রুপও একটি। তার প্রতিষ্ঠানে কর্মরত লোকের সংখ্যা ১১শ’। এদের শতকরা ৯০ জনই বাংলাদেশি।

টোকিও সেট গ্রুপ অফ কোম্পানির চেয়ারম্যান ও দুবাই বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিলের প্রতিষ্ঠাতা সহ-সভাপতি মোহাম্মদ মাহাবুব আলম মানিক ইনকিলাবকে বলেন, বুদ্ধি, সাহস, মনোবল, অদম্য ইচ্ছা, সততা আর কঠোর পরিশ্রমে সফলতা সম্ভব। তিনি বলেন ১৯৯২ সালে সউদী আরব গিয়ে প্রথমে চাকরি করেন এবং পরিকল্পনা অনুযায়ী পরবর্তীতে সেখানে ব্যবসা শুরু করেন।

ব্যবসা সাফল্যের ধারাবাহিকতায় আরো সম্প্রসারণের লক্ষ্যে ২০০০ সালে দুবাইয়ে এসে প্রথমে প্যানাসেট নামে একটি প্রতিষ্ঠান এবং পরবর্তীতে টোকিও সেট এলএলসি নামে আরো একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। এরপর থেকে বাড়তে থাকে তার ব্যবসা সাফল্যের বিশাল পরিধি। বর্তমানে আমিরাতে ১৩টি এবং বিশ্বের আরো ১১টি দেশসহ রয়েছে তার প্রায় ১শ’টি ছোট বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। রয়েছে প্রায় ৬০টি নামি-দামি নিজস্ব ব্র্যান্ডের পণ্যও। এসব পণ্য অত্যন্ত সুনামের সাথে বাজারজাত করে আসছে। ২০১৫ সালে আরব আমিরাতের শ্রম মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রদত্ত গোল্ডক্লাস মর্যাদার স্বীকৃতি পান বাংলাদেশের গর্বিত প্রবাসী বিশিষ্ট এই শিল্পপতি।

তার টোকিও সেট গ্রুপের উল্লেখযোগ্য পণ্য ডিভিশনগুলো হচ্ছে স্যাটেলাইট, ইলেক্ট্রনিক্স এন্ড ইলেক্ট্রিক্যাল এলইডি, টিভি এন্ড এন্ড্রোয়েড মিড টেবলেট পিসি, সিকিউরিটি সার্ভিস, কার অডিও ভিডিও এন্ড, এক্সোসরিজ, লাগেজ এন্ড স্কুল ব্যাগস, ব্যালাঙ্কেটস, আবায়া ফেব্রিকস, মিনি হোম এ্যাপলায়েন্স, ওয়াচ ও পারফিউমস।

মাহাবুব আলম মানিক আরো বলেন, বাঙালী জাতি হিসেবে দেশের মানুষকে প্রতিষ্ঠিত করাই হচ্ছে তার স্বপ্ন। তবে আমিরাতে বাংলাদেশের শ্রমবাজার বন্ধ থাকায় দেশীয় শ্রমিকের অভাবে তার ব্যবসা বাণিজ্যে চরম হিমশিম খেতে হচ্ছে বলেও জানান তিনি। মাহাবুব আলম মানিক আমিরাতে বাংলাদেশি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত থাকার পাশাপাশি বর্তমানে কুমিল্লা বিভাগ বাস্তবায়ন কমিটিরও সভাপতি তিনি। তার বাড়ি কুমিল্লা সদর উপজেলার কালির বাজার ইউনিয়নের ধনুয়াখলা গ্রামে। তার বাবার নাম মোহাম্মদ আবদুল আজিজ। তিনি উচ্চ মাধ্যমিক স্কুলের একজন সনামধন্য প্রধান শিক্ষক ছিলেন। মাহাবুব আলম মানিকের এ ব্যবসা সাফল্য এখন অনুপ্রাণিত করছে অন্য প্রবাসী বাংলাদেশি উদ্যোক্তাদেরও।

তথ্যসূত্র: ডেইলি ইনকিলাব ডটকম।

Check for details
SHARE