আগামীর সেই মশাল আপনিই ধরবেন কিন্তু কিভাবে…?

12042784_627072057396586_9071394849281896001_nকিছু মানুষ আছে যারা নতুন কোন কিছু সহ্য করতে পারে না। তারা মনে করে নতুন সব কিছুর মধ্যেই একটা অশনিসংকেত আছে। নতুন আলোর ঝলকানি তাদের কাছে মনে হয় আগুনের মত যা সবকিছু পুড়িয়ে দিবে। কিন্তু যারা উদ্যোক্তা হবে তারা নতুনের মাঝে খুজে ফিরেন আলোর ঝলকানি। সেই আলোর মশাল জ্বালিয়ে এগিয়ে যান আগামীর পথে।

আগামীর সেই মশাল আপনিই ধরবেন কিন্তু কিভাবে…?

নিজেকে আত্মবিশ্বাসী করে গড়ে তুলতে হবে। আর সেজন্য নিজের ওপর নিজের আস্থা রাখতে হবে। ঘন ঘন সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করা চলবে না। আপনার লক্ষটাকে স্থির করতে হবে। আপনি কি করতে চান সে বিষয়ে নিজে সুস্পষ্ট জানতে হবে। আপনি কোথায় যেতে চান সে পথ সম্পর্কে ধারনা থাকতে হবে। ধৈয্য আর সাহসের সাথে বুদ্ধিমানের মত এগোতে হবে।

আমরা অনেকেই কোন একটা সিদ্ধান্ত খুব সহজেই নিয়ে ফেলি। আগে পিছে ভাবার মত সময় আমাদের হাতে থাকে না। শর্টকাটে কত সল্প সময়ে অল্প পরিশ্রম করে জীবনে বড় হব সেটাই থাকে আমাদের একমাত্র চিন্তা। যার কারনে আমরা কোন কিছু শুরু করতে না করতেই সেটার সমাপ্তি ঘটে। আর তার দায়ভার আমরা তুলে দেই বিভিন্ন কারন দাড় করিয়ে তার কাধে। কিন্তু এসব কিছুর জন্য আপনি নিজেই দায়ী।

আজ পর্যন্ত আপনি কতবার জয়ের স্বাদ গ্রহন করেছেন? আর কতবার পরাজয়ের স্বাদ নিয়েছেন তার একটা হিসেব কষে ফেলুন। আর এই জয় পরাজয়ের পেছনের কারন গুলো একটু খুঁজে নিন। দেখবেন এর জন্য আপনি দায়ী। আপনার কোন না কোন সিদ্ধান্তের কারনেই পেয়েছিলেন কাংখিত জয় অথবা পরাজয়ের মালা পড়তে হয়েছিল আপনাকে। তাই সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে বার বার ভাবুন। একটা সঠিক সিদ্ধান্তই পারে আপনার জীবনকে বদলে দিতে।

আবেগ দিয়ে জয় পাওয়া সম্ভব না। তাই আবেগী হয়ে কোন ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়া চলেব না। বাস্তবতাকে মোকাবেলা করা শিখুন। প্রতিটা কাজের প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহন করুন। আপনার প্রতিযোগীদের বিচারে নিজের বাড়তি কি কৌশল আছে তা প্রয়ােগ করুন। প্রথমেই ভাল বক্তা হওয়ার কি কোন দরকার আছে। তার চেয়ে বরং ভাল একজন শ্রোতা হন। একজন ভাল শ্রোতাই আগামীর ভাল বক্তা।

আপনি নতুনত্বের ঝুঁকি মোকাবেলা করতে সাহসী ভুমিকায় থাকুন। আপনার নতুন কোন আইডিয়া বদলে দিতে পারে শুধু আপনার জীবন নয় একটা জাতির জীবনধারা পর্যন্ত। পরিবর্তনের সাথে মানিয়ে চলতে শিখুন। কারন পরিবর্তন একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। পরিবর্তনের ধারা সমাজ ও সভ্যতাকে সমৃদ্ধ করেছে। আর এই সমৃদ্ধ ধারায় নিজেকে সংযুক্ত করে আপনি হয়ে উঠুন আগামীর উদ্যোক্তা।

সততাকে কাজে লাগিয়ে আপনি আপনার বিবেকের আদালতে দাড়িয়ে যান। ভালো
মন্দের বিচারগুলো নিজে করতে শিখুন। আপনার বিবেক আপনাকে সঠিক পথটি সর্বদাই নির্দেশ করে। আপনি শুনতে পান না। কারন আপনি শোনার চেষ্টা কখনোই করেন না।

আপনাদের সকলের সুস্বাস্থ্য কামনা করে বিদায় নিচ্ছি আমি মাসুদুর রহমান মাসুদ। আমাদের সাথে থাকতে পেইজ এ লাইক দিন। লিখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত জানাতে কমেন্ট করুন। আর লিখাটি আপনার কাছে ভাল লেগে থাকলে শেয়ার করুন….

 

Check for details
SHARE